Tuesday, June 9, 2015

ভাইরাসেও ফুসফুসের ক্যান্সার হতে পারে!

কিছু সাধারণ ভাইরাস যেগুলো মাথা, কণ্ঠ, এমনকি গর্ভাশয়ে ক্যান্সারের জন্য দায়ী, সে ভাইরাসগুলোই আবার কিছু ক্ষেত্রে ফুসফুসে ক্যান্সারের জন্য দায়ী। ভারতীয় বংশোদ্ভূত এক মার্কিন বিজ্ঞানী নতুন এক গবেষণায় এ তথ্য উদ্ঘাটন করেছেন। খবর জিনিউজ ও দি ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের।

যুক্তরাষ্ট্রের ফক্স চেস ক্যান্সার সেন্টারের ওই গবেষণায় ক্যান্সারে আক্রান্ত রোগীদের ফুসফুস থেকে টিস্যু নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হয়। দেখা যায়, প্রায় ৬ শতাংশ রোগীর ক্ষেত্রে ক্যান্সারের জন্য দায়ী হিউম্যান প্যাপিলোমা (এইচপিভি) নামে এক ধরনের ভাইরাস।
যদি কিছু রোগীর ফুসফুস ক্যান্সারের জন্য এইচপিভি বাস্তবিকই দায়ী হয়, তবে পরবর্তী ধাপ হবে সেসব টিউমার ভালোভাবে শনাক্ত করা, যাতে কার্যকরভাবে ওই ক্যান্সারের চিকিৎসা করা যায়।
গবেষণা নিবন্ধের লেখক ফক্স চেস ক্যান্সার সেন্টারের ফিজিশিয়ান রানী মেহরা বলেন, ‘এ গবেষণায় সর্বোপরি সফলতা হচ্ছে, আমরা নিশ্চিতভাবেই ওই টিউমারের বৈশিষ্ট্য ধরে ক্যান্সার চিকিৎসায় থেরাপি দিতে পারব।’
মেহরা বলেন, এশিয়ার দেশগুলোর রোগীদের ক্ষেত্রে দেখা গেছে, তাদের ফুসফুসে এইচভিপি আক্রান্ত। মাথা ও গলার কাছাকাছি ফুসফুসের অবস্থান হওয়ায় মাথা ও গলায় ক্যান্সার সৃষ্টিকারী ভাইরাস সহজেই ফুসফুসে হানা দিতে পারে। মূলত শ্বাস-প্রশ্বাসের মাধ্যমেই ফুসফুসে এইচপিভি প্রবেশ করে। এই গবেষণায় ধূমপানকারী কারও তথ্য নেওয়া হয়নি বলে জানানো হয়েছে।

No comments:

Post a Comment